হলুদ বন


কারো দিকে নয় এমনভাবে ছুটে আসে হলুদ বন। তোমার বা আমার বা কোন তৃতীয়জনের দিকে নয়। এমনভাবে ছুটে আসে হলুদ বন অথচ আমাদের দিকে নয়।

তুমুল হলুদ ফুটছে, তুমুল বাক্যাবলী হচ্ছে বিনিময়। ফুটন্ত হলুদ নিজের সম্পর্কে প্রচুর বলছে। প্রচুর বলে বলে হলুদ হলুদতর হচ্ছে।

বন হলুদের ছবি, একটা উত্তম শৈলী। আমরা ধারনা করি যেন বুঝে গেছি ছবিতে কেন হরুদ রঙ, কেনই বা তা হলুদ বন। ছবিতে এই ছবির উপস্থিতি, হলুদের উপস্থিতি আমাদের স্বস্তি দেবে নাকি!
____

এখানে গাছে ডোরাকাট হয়, বাঘ হয়। বনগাছ ও বাঘবন মিলে ছত্রখান হয়। এক শরিরী হয় তবু। একনাম।

একজনই এখানে ডোরাকাটা ছবি আঁকে। একটা বাঘই ভয়ানক দেখে সুুদৃশ্য হাঁক ছাড়ে। এক অপরের ডিঙ্গোতে থাকে অবিশ্রাম। ফের এক আঁচড়ে মিলেমিশে খুন।
____

চিরকাল ভ'রে সবুজই বন। বোনেরা ও আমার মৃত বোনেরা অন্তর্হিত হয় এর দিকে। মুখ বাড়িয়ে থ বনে যাই! একটা নিঃসঙ্গ ঘর ঘিরে ঘোর প্লাবনের মতো বন বেড়ে চলছে। দরোজজার মুখে অসীম সংখ্যক বোনেরা কখন এসে দাঁড়ালে! তাদের গা'য়ের কাঁচা হলুদের মতো রঙ এই বিস্ময়ের বনে ...

প্রচুর হলুদ ডুবো জাহাজ হয়ে গেলে কেউ গ্রাহ্য করে না তারা হলুদ। প্রচুর জাহাজ ডুবো হলুদে ভরে গেলে কেউ গ্রাহ্য করে না তারা হলুদ। তারা এক একটা জাহাজী বন। প্রয়োজনে ভুস করে ভাসে।
____

আমাদের প্রয়োজন ছিল একত্রে গোল হয়ে বসা। আমাদের প্রয়োজন ছিল গোল হয়ে একত্রে বসা। অথচ আমরা একজনের পর একজন হয়ে পান করি রক্তবর্ণ চা। সব চতুর্থ মুখ দেখা হয় না।

আমাদের প্রয়োজন ছিল প্রথম মাদক ছুঁঁয়ে দেয়া। প্রথমবারের মতো মন্দের ভাল হওয়া। প্রথম তরঙ্গের ঘাড়ে চড়ে বাঘবনে যাওয়া। প্রচুর ডুবে যেয়ে ভেসে ভাসবার জুয়া ধরা।

কেননা আমরাই বাঘ, আমরা বন, প্রচুর হলুদের জাহাজ আমরা।